সাতক্ষীরা ১১:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ফুল না দেওয়ায় ইউএনওর সামনে শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ টানা তৃতীয় মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভয়েস অব আমেরিকার সংবাদ কণ্ঠ দিলারা হাসেম আসামের কামরূপ এবং মেঘালয়ের চেরাপুঞ্জী ভ্রমণ বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটারে বাড়তি চার্জ : প্রতিকার চেয়ে হাইকোর্টে রিট স্মার্ট বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় হবে ১২,৫০০ ডলার : সংসদে অর্থমন্ত্রী স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে যেতে পারে বেসরকারি নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিও করণ খাতে বরাদ্দ! সাবেক পুলিশ প্রধান বেনজিরের স্পেনে সেকেন্ড হোম, তুরস্কে নাগরিকত্ব সাতক্ষারা সরকারি কলেজ রোড পুনঃনির্মাণের দাবীতে নাগরিক কমিটির সড়ক অবরোধ সাতক্ষীরার শিক্ষাকাশের উজ্জ্বল জ্যোতিষ্ক আব্দুল মোতালেব

‘প্রেমিকাকে খুব ভালোবাসি’, ফেসবুক লাইভে যুবকের আত্মহত্যা

পিসিবার্তা ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ১১:২৭:০৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল ২০২৩ ৬২৩ বার পঠিত

মধ্যরাতে হঠাৎ ফেসবুক লাইভে এলেন ২৭ বছর বয়সি যুবক জয়দীপ। আর লাইভ চলাকালেই আত্মহত্যা করলেন তিনি। আসামের কাসার জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

একটি মেডিকেল কোম্পানিতে কাজ করতেন জয়দীপ। তার পরিবার জানিয়েছে, লাইভ শুরু করার আগে তিনি পরিবারের সব সদস্যকে ব্লক করে দিয়েছিলেন।

আত্মহত্যা করার আগে তিনি পরিবারের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। তিনি ফেসবুক লাইভে বলেন, মা, কাকা, কাকিমা, বোন, দাদা, ভাইঝি, জামাইবাবু সবাইকে বলছি সরি! আমি সবাইকে ভালোবাসি। কিন্তু আমার প্রেমিকাকে আমি খুব ভালোবাসি। ফেসবুক লাইভে তাকে কাঁদতেও দেখা যায়। এর পরই আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

জয়দীপের দাদা জানিয়েছেন, শিলচরে একটা ভাড়া বাড়িতে থাকত ভাই। আত্মহত্যার বিষয়টি জেনেই আমরা বাড়িওয়ালাকে খবর দিই। দ্রুত তারা ঘরে যায়। কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ। তারা দেখেন সিলিংফ্যান থেকে দেহটা ঝুলছে।

ইতোমধ্যে পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। রিপোর্ট হাতে আসার পর একটি স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করা হবে।

এদিকে প্রেমের এই ভয়াবহ পরিণতিকে ঘিরে নানা চর্চা শুরু হয়েছে এলাকায়। ভেঙে পড়েছে ওই যুবকের পরিবার।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

‘প্রেমিকাকে খুব ভালোবাসি’, ফেসবুক লাইভে যুবকের আত্মহত্যা

আপডেট সময় : ১১:২৭:০৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল ২০২৩

মধ্যরাতে হঠাৎ ফেসবুক লাইভে এলেন ২৭ বছর বয়সি যুবক জয়দীপ। আর লাইভ চলাকালেই আত্মহত্যা করলেন তিনি। আসামের কাসার জেলায় এ ঘটনা ঘটেছে। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

একটি মেডিকেল কোম্পানিতে কাজ করতেন জয়দীপ। তার পরিবার জানিয়েছে, লাইভ শুরু করার আগে তিনি পরিবারের সব সদস্যকে ব্লক করে দিয়েছিলেন।

আত্মহত্যা করার আগে তিনি পরিবারের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। তিনি ফেসবুক লাইভে বলেন, মা, কাকা, কাকিমা, বোন, দাদা, ভাইঝি, জামাইবাবু সবাইকে বলছি সরি! আমি সবাইকে ভালোবাসি। কিন্তু আমার প্রেমিকাকে আমি খুব ভালোবাসি। ফেসবুক লাইভে তাকে কাঁদতেও দেখা যায়। এর পরই আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

জয়দীপের দাদা জানিয়েছেন, শিলচরে একটা ভাড়া বাড়িতে থাকত ভাই। আত্মহত্যার বিষয়টি জেনেই আমরা বাড়িওয়ালাকে খবর দিই। দ্রুত তারা ঘরে যায়। কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ। তারা দেখেন সিলিংফ্যান থেকে দেহটা ঝুলছে।

ইতোমধ্যে পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। রিপোর্ট হাতে আসার পর একটি স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করা হবে।

এদিকে প্রেমের এই ভয়াবহ পরিণতিকে ঘিরে নানা চর্চা শুরু হয়েছে এলাকায়। ভেঙে পড়েছে ওই যুবকের পরিবার।