সাতক্ষীরা ০৯:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ফুল না দেওয়ায় ইউএনওর সামনে শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ টানা তৃতীয় মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভয়েস অব আমেরিকার সংবাদ কণ্ঠ দিলারা হাসেম আসামের কামরূপ এবং মেঘালয়ের চেরাপুঞ্জী ভ্রমণ বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটারে বাড়তি চার্জ : প্রতিকার চেয়ে হাইকোর্টে রিট স্মার্ট বাংলাদেশে মাথাপিছু আয় হবে ১২,৫০০ ডলার : সংসদে অর্থমন্ত্রী স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে যেতে পারে বেসরকারি নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিও করণ খাতে বরাদ্দ! সাবেক পুলিশ প্রধান বেনজিরের স্পেনে সেকেন্ড হোম, তুরস্কে নাগরিকত্ব সাতক্ষারা সরকারি কলেজ রোড পুনঃনির্মাণের দাবীতে নাগরিক কমিটির সড়ক অবরোধ সাতক্ষীরার শিক্ষাকাশের উজ্জ্বল জ্যোতিষ্ক আব্দুল মোতালেব

ফোন ধরবেন কোন কানে?

পিসিবার্তা ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৪:৩৫:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মার্চ ২০২৩ ৩৭৮ বার পঠিত

ফোন থেকে অনেক ধরনের রেডিয়েশন বের হয়, যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এমন পরিস্থিতিতে দীর্ঘক্ষণ ফোনে কথা বলাও মারাত্মক ক্ষতির কারণ হতে পারে। কারণ ফোন থেকে অনেক ধরনের রেডিয়েশন বের হয়, যা মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এর পরও কানভেদে ফোন ধরায় ক্ষতির তারতাম্য হয়। এ বিষয়ে ফিনল্যান্ডের একদল বিজ্ঞানী তাদের গবেষণায় দেখেছেন, ডান ও বাম কানে ফোন ধরার মধ্যে তারতম্য রয়েছে। বিজ্ঞানীরা অনেক দিন ধরেই বলে আসছেন, স্মার্টফোন হোক কিংবা ফিচার ফোন-উভয় ধরনের ফোনই বেশি ব্যবহার করা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তাই ফোনে কথা বলার সময় ফোন কোন কানে ধরবেন, ডান নাকি বাঁ কান-এ নিয়ে দীর্ঘ জিজ্ঞাসা ছিল।

Advertisement

বেশির ভাগ মানুষ ফোনে কথা বলার সময় তাদের ডান কান ব্যবহার করেন। একটি গবেষণা অনুযায়ী, ডান দিকের কান সরাসরি মস্তিষ্ককে প্রভাবিত করে। ফলে আপনি ছোট ছোট বিষয় নিয়ে চিন্তিত হতে পারেন। তখন বিকিরণ মস্তিষ্ককে বেশি প্রভাবিত করে। এর অন্যতম কারণ হচ্ছে বিশ্বের ৯০ শতাংশ মানুষ ডানহাতি। ফলে যেকোনো কাজ করার জন্য প্রথমেই তারা ডান হাত, ডান পা বা ডান কান ব্যবহার করেন। তবে ডান কানের ফোন ধরার জন্য নানা সমস্যা দেখা দেয় ব্যবহারকারীর। বাঁ কানের তুলনায় ডান কান মস্তিষ্কের বেশি কাছে থাকে। ফলে ডান কানে ফোন রেখে কথা বললে ব্রেনের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। তাই ফোনে কথা বলার সময় বাঁ দিকের কান ব্যবহার করা উচিত। ফিনল্যান্ডের বিজ্ঞানী এবং নিউক্লিয়ার সেফটি অথরিটির ২০০২ সালের একটি গবেষণায় বলা হয়েছিল, যখন মানুষের কোষ ফোনের সংস্পর্শে আসে তখন মোবাইল ব্লাড-ব্রেন ব্যারিয়ার-এর প্রাচীর ক্ষতিগ্রস্ত করে। ব্লাড-ব্রেন ব্যারিয়ার-এর বাধা মানবদেহে সুরক্ষা কবচ হিসাবে পরিচিত। এটি রক্তের দূষিত পদার্থগুলোকে মস্তিষ্কে প্রবেশ করতে বাধা দেয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ফোন ধরবেন কোন কানে?

আপডেট সময় : ০৪:৩৫:২৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মার্চ ২০২৩

ফোন থেকে অনেক ধরনের রেডিয়েশন বের হয়, যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এমন পরিস্থিতিতে দীর্ঘক্ষণ ফোনে কথা বলাও মারাত্মক ক্ষতির কারণ হতে পারে। কারণ ফোন থেকে অনেক ধরনের রেডিয়েশন বের হয়, যা মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এর পরও কানভেদে ফোন ধরায় ক্ষতির তারতাম্য হয়। এ বিষয়ে ফিনল্যান্ডের একদল বিজ্ঞানী তাদের গবেষণায় দেখেছেন, ডান ও বাম কানে ফোন ধরার মধ্যে তারতম্য রয়েছে। বিজ্ঞানীরা অনেক দিন ধরেই বলে আসছেন, স্মার্টফোন হোক কিংবা ফিচার ফোন-উভয় ধরনের ফোনই বেশি ব্যবহার করা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তাই ফোনে কথা বলার সময় ফোন কোন কানে ধরবেন, ডান নাকি বাঁ কান-এ নিয়ে দীর্ঘ জিজ্ঞাসা ছিল।

Advertisement

বেশির ভাগ মানুষ ফোনে কথা বলার সময় তাদের ডান কান ব্যবহার করেন। একটি গবেষণা অনুযায়ী, ডান দিকের কান সরাসরি মস্তিষ্ককে প্রভাবিত করে। ফলে আপনি ছোট ছোট বিষয় নিয়ে চিন্তিত হতে পারেন। তখন বিকিরণ মস্তিষ্ককে বেশি প্রভাবিত করে। এর অন্যতম কারণ হচ্ছে বিশ্বের ৯০ শতাংশ মানুষ ডানহাতি। ফলে যেকোনো কাজ করার জন্য প্রথমেই তারা ডান হাত, ডান পা বা ডান কান ব্যবহার করেন। তবে ডান কানের ফোন ধরার জন্য নানা সমস্যা দেখা দেয় ব্যবহারকারীর। বাঁ কানের তুলনায় ডান কান মস্তিষ্কের বেশি কাছে থাকে। ফলে ডান কানে ফোন রেখে কথা বললে ব্রেনের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। তাই ফোনে কথা বলার সময় বাঁ দিকের কান ব্যবহার করা উচিত। ফিনল্যান্ডের বিজ্ঞানী এবং নিউক্লিয়ার সেফটি অথরিটির ২০০২ সালের একটি গবেষণায় বলা হয়েছিল, যখন মানুষের কোষ ফোনের সংস্পর্শে আসে তখন মোবাইল ব্লাড-ব্রেন ব্যারিয়ার-এর প্রাচীর ক্ষতিগ্রস্ত করে। ব্লাড-ব্রেন ব্যারিয়ার-এর বাধা মানবদেহে সুরক্ষা কবচ হিসাবে পরিচিত। এটি রক্তের দূষিত পদার্থগুলোকে মস্তিষ্কে প্রবেশ করতে বাধা দেয়।