করোনায় কারিগরি শিক্ষার সাড়ে ৩ হাজার উদ্যোক্তার মানবেতর জীবন যাপন : প্রয়োজন সরকারের প্রনোদনা

1,092
Print Friendly, PDF & Email

করোনা মহাদুর্যোগে সারাদেশে সাড়ে হাজার কারিগারি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের ৫০ সহস্রাধিক প্রশিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারী স্বল্প বেতনভাতায় চাকরী করে কোন রকম ভাবে দিনতিপাত করে আসছেন। কোবিড১৯ কারনে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক প্রতিষ্ঠানগুলো ১৮মার্চ২০২০ ইং থেকে বন্ধ রয়েছে। দেশের ওইসব স্বউদ্যোগে প্রতিষ্ঠত  প্রতিষ্ঠানগুলোতে কর্মরত প্রশিক্ষকর্মচারীগণ বেতন ভাতা পরিশোধ উদ্যোগতাদের কঠিন হয়ে উঠেছে। তার ওপরে প্রতিষ্ঠাগুলোর বাড়ি ভাড়া, ইউটিলিটি ব্যয় (বিদ্যুৎ, টেলিফোন, ইন্টারনেট ইত্যাদি) এখন গড়ার ওপর খাড়াঘা হয়ে উঠেছে। জানা গেছে প্রতিষ্ঠানগরোর বেতনভাড়া আনাসাঙ্গিক ব্যয প্রতিমাসে প্রায় ১০৫ কোটি টাকা। করোনার মহাদুর্যোগ পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে এবং আবারও প্রশিক্ষণ কার্যক্রোম সচল অব্যহত রাখতে  উদ্যোক্তাগণ  সরকার ঘোষিত আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজের অর্ন্তভক্ত হওয়ার জন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর  দৃষ্টি আকর্ষ করে একটি আবেদন করেছে (যার ম্মারক নং বিটিএসডি এফ/২০২০/১০ () তারিখ ২৬/০৪/২০২০ ইং)

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড অনুমোদিত বেসিক ট্রেড প্রতিষ্ঠান সমূহের সমন্বয়কারী সংগঠন ‘বেসিক ট্রেড স্কীঁল ডেভেলপমেন্ট ফোরাম’ আহবায়ক নিত্যানন্দ সরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর এক ম্মারকে বলেন, বেসিক ট্রেড স্কীল ডেভেলপমেন্ট ফোরামের বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড অনুমোদিত বেসিক ট্রেড পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান সমূহের সমন্বয়কারী ফোরাম। উদ্যোক্তা/ প্রতিষ্ঠানগুলো দেশের বিপুল পরিমান জনসংখ্যাক বিভিন্ন ট্রেডে কারিগরি আইসিটি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ মানব সম্পদ ফ্রিল্যান্সার তৈরি এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমানে কাজ করে যাচ্ছে।

বেসিক ট্রেড স্কীঁল ডেভেলপমেন্ট ফোরাম সদস্য সচিব মো, তোফাজ্জেল হোসেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর এক ম্মারকে বলেন, উদ্যোক্তা/প্রতিষ্ঠানগুলো শারীরিক প্রতিবন্ধী, হিজড়া, বিধবা স্বামী পরিত্যাক্তা মহিলাসহ সমাজের সুবিধা বঞ্চিত বেকার যুবক যুবতীদের বিনা খরচে দক্ষতা উন্নয়নে প্রশিক্ষণ দিয়ে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে আসছে। উদ্যোক্তা/ প্রতিষ্ঠানগুলো সব ধরনের জাতীয় দিবস পালনসহ সরকার ঘোষিত সকল রাষ্ট্রীয় কার্যক্রম স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করে থাকে। বর্তমানে সরকার মিশন২০২১ রুপকল্প২০৪১ বাস্তবায়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করে আসছে। একই সাথে এসডিজি অর্জনে প্রতিষ্ঠানগুলো গুরুর্ত্বপূন মিকা পাল করে আসছে।
বেসিক ট্রেড স্কীঁল ডেভেলপমেন্ট ফোরাম নির্বাহী সদস্য মো: লুৎফর রহমান বলেন, বর্তমানে করোনা মহাদুর্যোগে উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানগুলো করেনা সচেতনতা মূলত লিফলেট অনলাইন মিডিয়ায় প্রচার, মাস্ক, সাবান, হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ খাদ্য সামগ্রী বিতরন অব্যাহত রাখছে। করোন সংক্রামক এড়াতে প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সত্বেও প্রশিক্ষাণার্ধীদের স্বার্থে অনলাইনে ক্লাশ নেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে উদ্যোক্তাগণ জেলাউপজেলা পর্যায়ে করোনা সংকট প্রতিরোধে সক্রিয় ভাবে কাজ করেছেন।
তাই বর্তমান প্রেক্ষাপটে এসডিজিঅর্জনে সহায়ক প্রতিষ্ঠান অর্থাৎ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড সেরকারি প্রতিষ্ঠান টিকিয়ে রাখার লক্ষ্যে সরকারি প্রণোদনাসহ বিভিন্ন কর্মসূচীতে অর্ন্তভক্ত রাখা প্রয়োজন। বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মূখ্য্যসচিবসহ সংশ্লিষ্ট বোর্ড কর্তপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।।

তথ্যঃ সাইফুল ইসলাম, বরিশাল লাইভ।